এই ৪ টি উপায়ে ব্লাকহেড দূর করুন চিরতরে

এই ৪ টি উপায়ে ব্লাকহেড দূর করুন চিরতরে

সবার নাকি ব্ল্যাকহেডস একটি কমন সমস্যা এই ৪ টি উপায়ে ব্লাকহেড দূর করুন চিরতরে। স্কিন যেমনই হোক না কেন নাকের ডগায় ব্ল্যাকহেডস অথবা খত প্রায় সবার ক্ষেত্রেই দেখা যায় শরীরে হরমোনের পরিবর্তনের কারণে অনেকের মুখে ও নাকে ব্ল্যাকহেডস ওঠে আর এই ব্ল্যাকহেডস নিয়ে অনেক দুশ্চিন্তার অন্ত নেই।

বাজারে অনেক প্রোডাক্ট আছে যে আপনাকে এটি দূর করতে সহায়তা করতে পারে কিন্তু খুব কম প্রোডাক্টটি আছে যেটি আপনাকে পার্মনেন্ট সলিউশন দেবে এছাড়া ওই গুলোর দাম অনেক বেশি তাই আজকে আমরা আপনাকে এমন কিছু সহজ সলিউশন দেবো যা ঘরোয়া উপায়ে নিজের তৈরি করে ব্যবহার করতে পারবেন এবং এই সমস্যার পার্মানেন্ট সলিউশন পেয়ে যাবেন।

প্রথমে চলুন জেনে নেই এটি আসলে কেন হয় এটি মূলত স্কিনের বাইরের দিকে বের হয়ে আসে এটি স্কিনে বের হয়ে কালো হয়ে যায় যা খুব সহজেই দেখা যায়। অনেক কারণেই স্ক্রিনে ব্ল্যাকহেডস দেখা দিতে পারে এটি সাধারণত বয়সন্ধির সময় বেশি দেখা যায় শরীর যখন অনেক ধরনের হরমোনাল পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যায় তখন মুখে ব্রণ ব্লাকহেড সহ নানা পরিবর্তন দেখা দেয়।

এছাড়াও মেয়েদের পিরিয়ড জনিত কারণে প্রেগনেন্সির সময় মানসিক দুশ্চিন্তার কারণে অ্যালকোহল অতিরিক্ত ক্যাফেইন গ্রহণ এমনকি ধূমপানও অনেক বড় একটি কারন এই সব সমস্যার জন্য দায়ী। সবার আগে আমাদের পরামর্শ থাকবে অ্যালকোহল ধূমপান এবং ক্যাফেইন গ্রহণ থেকে নিজেকে বিরত রাখা। তো এখন চলুন জেনে নেই কিভাবে ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্তি মিলবে সেই সম্পর্কে।

১. ব্লাকহেড দূর করতে হলুদ ব্যবহার

হলুদ হলুদের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান ত্বক উজ্জ্বল রাখতে বিশেষ ভূমিকা রাখে এটি ত্বকের অনাকাঙ্ক্ষিত দাগ দূর করে উজ্জ্বলতা বাড়ায় সেইসাথে ব্ল্যাকহেড দূর করতে বিশেষ ভূমিকা রাখে। প্রথমে পুদিনা পাতার রস করে নিন এর মধ্যে হলুদ বাটা হলুদ দিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করে নিন এবার এই মিশ্রণটি ব্ল্যাকহেডস আক্রান্ত জায়গাগুলোতে মাখিয়ে নিন শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

আরেকটি পদ্ধতি হলো হলুদ, চন্দনের গুর এবং কাঁচা দুধ দিয়ে ঘন করে মিশ্রন তৈরী করে নিন এই মিশ্রণ ব্ল্যাকহেডস আক্রান্ত স্থানে মাখিয়ে অন্তত ১০ মিনিট রাখুন এবার পানি দিয়ে ধুয়ে নিন এই মিশ্রণ সপ্তাহে অন্তত দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করতে পারলে ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা মিটে যাবে।

২. ব্লাকহেড দূর করতে মধু ব্যবহার

মধু ওষুধিগুণসম্পন্ন একটি ভেষজ পদ্ধতিতে রূপচর্চায় মধু অপরিহার্য মধু এমন একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় এছাড়াও ত্বক নরম রাখে বলিরেখা ও কালচে ভাব দূর করে সেই সাথে ব্রণ ধ্বংস করতে মধু বেশ কার্যকর। খুব কম সময় উজ্জ্বল ত্বক পেতে চাইলে মধুর কোনো বিকল্প নেই। তেমনি ব্ল্যাকহেড দূর করতেও দীর্ঘদিন ধরে মধু ব্যবহার হয়ে আসছে ব্ল্যাকহেডস অংশে ভালো করে মধু মাখিয়ে রাখুন শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন এই মধু ত্বককে কোমল রাখে লোমকুপ রাখে সংকোচিত ফলে ব্লাকহেড দূর করুন চিরতরে নতুন ব্ল্যাকহেডস হয়না।

ব্ল্যাকহেড দূর করার পাশাপাশি ত্বকের রঙ উজ্জ্বল করে। এই সাথে লেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন এক চা-চামচ মধু এক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে ২০ মিনিট মুখে ম্যাসাজ করুন এরপর ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন আপনার ত্বক এক নিমিষেই উজ্জ্বল হয়ে যাবে

[আরো পড়ুন : খালি পেটে এই ৬ টি কাজ কখনোই করবেন না ]

৩. ব্লাকহেড দূর করতে লেবু ও সামুদ্রিক লবণ ব্যবহার

১ টেবিল চামচ সামুদ্রিক লবণ, ১ টেবিল চামচ লেবুর রস এবং এক চামচ পানি নিয়ে একটি বাটিতে মিশিয়ে নিন। এরপর ব্ল্যাকহেড ওপর ২ থেকে ৩ মিনিট আলতোভাবে মালিশ করে লাগিয়ে নিন এরপর ১০ থেকে ১৫ মিনিট ধরে শুকিয়ে নিন তারপর হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এরপর আবার ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সবশেষে একটি মশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করতে ভুলবেন না এই সপ্তাহে একবার করলেই হবে। লেবু ব্ল্যাকহেড জন্য একটি সারপ্রাইজ গ্রেডিয়েন্ট যেকোনো মাক্সে লেবুর রস খুবই কার্যকরী হয়ে থাকে এটি ব্রণ এবং অন্যান্য স্কিনের সমস্যা থেকে রক্ষা করে।

৪. ব্লাকহেড দূর করতে গ্রিন টি ব্যবহার

গ্রিন টি বিবৃত করা এবং ত্বকের ইনফেকশন দূর করার কাজে বিশেষভাবে পরিচিত এটি ব্ল্যাকহেড দূর করায় খুবই কার্যকরী করার জন্য আপনাকে একটি গ্রিন টির নিতে হবে একটি কাপের এক-তৃতীয়াংশ পানি এবং ৩ টেবিল চামচ চিনি দিয়ে প্রথমে পানি টিবেগ টি দিয়ে নাড়তে থাকুন রং পরিবর্তন হলে আলাদা একটি পাত্রে ২ টেবিল চামচ চিনির সাথে এক চামচ গ্রিন-টি যোগ করুন ভালোভাবে মিশিয়ে নিন এরপর আরো ১ চামচ চিনি যোগ করুন এবং মেশাতে থাকুন মিশ্রণটি রেডি। এবার ব্ল্যাকহেড স্থানে ব্যবহার করুন নাকের উপর সারকুলার মোশনে মাসাজ করুন ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন শুকিয়ে আসলে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

উপরের এই ৪ টি উপায়ে ব্লাকহেড দূর করুন চিরতরে সবগুলো প্রসেস একসাথে ব্যবহার করার দরকার নেই আপনার জন্য সহজপ্রাপ্য এবং ত্বকের সাথে মানানসই ১ থেকে ২টি পদ্ধতি ব্যবহার করলেই হবে যদি আপনার এগুলো ব্যবহারের অভিজ্ঞতা থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না ।

বন্ধুরা এই প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না ধন্যবাদ।