দাদ ও চুলকানি দূর করার ঘরোয়া উপায়

দাদ ও চুলকানি দূর করার ঘরোয়া উপায়

দাদ ও চুলকানি দূর করার ঘরোয়া উপায় হাই ফ্রেন্ডস যদি আপনি দীর্ঘদিন ধরে দাদ ও চুলকানির সমস্যায় ভুগছেন। তবে আর চিন্তা করবেন না। কারণ আমি আপনাদের একটি খুব সহজ টিপস শেয়ার করবো যা আপনি নিজেই বাড়িতে বানিয়ে ব্যবহার করলে । চিরদিনের জন্য আপনার দাদ ও চুলকানির গায়েব হয়ে যাবে। 

দাদ ও চুলকানি আসলে একটি ফাংগাল ইনফেকশন যা আমাদের শরীরের বিভিন্ন জায়গাতে হতে পারে। কিন্তু সেই জায়গাটা হাত দিয়ে চুলকানো একদম ঠিক না। কারণ খুব জলদি দাদ ছোট জায়গা থেকে শরীর আরো অনেক জায়গায় ছড়িয়ে পরে। 

গবেষণা বলছে যে যেখানে দাদ ও চুলকানি হয়। আমরা সেখানে পচুর পরিমান চুলকানি হয় । তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দাদ সারিযে ফেলা উচিত। ধরুন আপনি কোন ভালো ড্রেস পড়ে কোন অনুষ্ঠানে গেছেন। সেখানে গিয়ে আপনি সবার সামনে চুলকাছেন জিনিসটা দেখতে একদমই ভালো লাগবে না। 

তো চলো দেখে নিয় ঘরোয়া রেমিডি টি বানানোর জন্য কি কি লাগছে। তার সাথে সাথে আমি একটি ঔষধ বলে দেবো। যা ২ দিন ব্যবহার করলেই দাদ ও চুলকানি গায়েব হয়ে যাবে। কারণ অনেকেরই হাতে এত সময় থাকেনা। 

এখন ওই ঘরোয়া রেমিডি টি বানানোর জন্য। সবার প্রথমে নেব হলুদ ২চামচ মত হলুদ। হলুদের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যেটি আমাদের দাদ ও চুলকানি গোরা থেকে শেষ করে দেয়। তারপর আমি এখানে নেব নিমপাতা পেস্ট বানিয়ে নিতে পারেন। না হলে রোদে শুকিয়ে পাউডারও নিতে পারেন। 

আমি এখানে পাউডার ব্যবহার করছি তাই ১ চামচ নিম পাউডার নিয়ে নেব। প্রাচীন যুগ থেকেই নিমের ব্যবহার হয়ে আসছে। চামড়ার যেকোনো সমস্যায়। 

এরপর আমি এখানে নেব নারকেল তেল ১চামচ মত নারকেল তেল নিয়ে নেব। নারকেল তেল ছাড়া কোন তেল ব্যবহার করবেন না। কারণ এই তেলটিতে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা ত্বকের রোগ সারাতে অনেক কাজ দেয়। এখন এই সব গুলি উপকরণ কে ভাল করে মিক্স করে নিন। 

আরো পড়ুন : তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সেরা ১০ টি নাইট ক্রিম 

মিক্স করার পর একদম শেষে নেব একটি অর্ধেক পতি লেবুর রস এর ভেতর সাইট্রিক এসিড পাওয়া যায়। দাদ ও চুলকানি ইনফেকশানে খুবই দ্রুত কাজ দেয়। দিয়ে মিক্স করে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন। এখন পেষ্ট একদম তৈরি। এবার জেনে নিয়ে এটাকে  কিভাবে ব্যবহার করবেন। 

আপনি এটি রাত্রে ব্যবহার করবেন আপনার দাদ ও চুলকানির জায়গায়। লাগানোর আগে আপনি আপনার হাত পরিষ্কার করবেন। নোংরা হাতে লাগাবেন না।পুরো ইনফেকশন এর জাইগাই ভালো ভাবে ম্যাসেজ করবেন। তারপর সকালে উঠে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে নেবেন।

 যদি আপনি ১সপ্তাহ এটি ব্যবহার করেন। তবে আপনি দাদ ও চুলকানি হাত থেকে মুক্তি পাবেন। এবার জেনে নিই এই ওষুধের ব্যাপারে ওষুধ টির নাম হল Quadriderm RF এটি আপনি সহজেই যেকোন লোকাল medical shop পেয়ে যাবেন। এর দাম মাত্র ৫৭ টাকা।

 এটি রাত্রে ঘুমোনোর আগে অল্প মলম নিয়ে যেখানে আপনার দাদ ও চুলকানি ওখানে লাগিয়ে দিন। আপনারা এটি দিনে ২বার ব্যবহার করুন। এক বার স্নান করার পরে আর একবার রাত্রে শোবার সময় 

আপনার নিজেই দেখতে পাবেন।