বাচ্চাদের খাবারে রূচি বাড়ানোর উপায়

বাচ্চাদের খাবারে রূচি বাড়ানোর উপায়

এটি বেশিরভাগ মায়েদের একটি সাধারণ অভিযোগ।  অনেক শিশু নতুন খাবার খেতে চায় না।  যা মুখে দেওয়া হয়, জিহ্বা দিয়ে মুখ থেকে ঠেলে বের করে দেয়। অনেক সময় বমি করে।  এটি যখন ঘটে তখন মা খুব ভয় পান এবং  বাচ্চাকে জোর করে খাওয়ানোর চেষ্টা করেন, যা সঠিক নয়।  এটি খাদ্যের প্রতি শিশুর মধ্যে ভয় তৈরি করে।  খাবারে অনীহা তৈরি হয় । 

 ছয় মাস বয়সে বাচ্চারা কীভাবে দুধ গিলতে হয় তার সাথেই পরিচিত।  তাই  যখন কোনও শিশুকে প্রথমে খাবার দেয়া তখন এটি তার কাছে অপরিচিত মনে হয়।  এই নতুন খাবারের অভ্যস্ত হতে সময় নেওয়া স্বাভাবিক।  তাই বাচ্চাকে কমপক্ষে এক সপ্তাহের জন্য কোনও নতুন খাবার খাওয়ানোর চেষ্টা করুন। 

এরপরও যদি বাচ্চা খেতে না চায় তবে কয়েক দিন বিরতি দিয়ে আবার খাওয়ানোর চেষ্টা করুন।  আরও একটি জিনিস চেষ্টা করা যেতে পারে।  নতুন খাদ্যাভাস যুক্ত করতে, শিশুর খাবারে মায়ের বুকের দুধ যুক্ত করে, এতে শিশু তার পরিচিত খাবারের স্বাদ পাবে।  ফলস্বরূপ, আপনার বাচ্চার সহজেই নতুন খাবারে অভ্যস্ত হয়ে উঠবেন।  তবে ওজন বাড়াতে শিশুর বুকের দুধ খাওয়ানো দরকার।  কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস মনে রাখবেন

বাচ্চাদের খাবারে রূচি বাড়ানোর উপায়

আরো পড়ুন – নবজাতকের যত্ন কিভাবে নিবেন

১. বাচ্চাদের নতুন খাবার খাওয়া শিখতে এবং গ্রহণ করতে একটু সময় লাগবে।  তাই এই সময়ে ধৈর্য ধরুন এবং তাকে নতুন খাবার গ্রহণে সহায়তা করুন।

 ২. আপনার বাচ্চার প্রথম খাবারটি পুরো শস্য যাতিয় হয়া উচিত , যেমন চাল, গম এবং  বিভিন্ন ধরনের ফল যেমন কলা, আপেল অথবা সিদ্ধ ও চটকানো শাকসবজি যেমন আলু এবং  সব্জি। 

৩. শস্যের মধ্যে সকলেই বেশি ভাত পছন্দ করে।  এটি সহজে হজম হয় এবং খুব কম বাচ্চাদের এই খাবারের অ্যালার্জি থাকে।

৪. বাচ্চাদের কাছে নতুন খাবারের স্বাদটি খুব অদ্ভুত তাই  প্রাথমিকভাবে এক বা দুই চামচ দানা দিনে দুবার দিন, ধীরে ধীরে খাবারের পরিমাণ এবং ভিন্নতা বাড়ান।

 ৫. শিশুর খাবার গুলিও পরিস্কার জলে ধুয়ে রান্না করা উচিত। বাচ্চাকে খাওয়ানোর আগে আপনার হাত সাবান দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিন। 

 ৭. শিশুর জন্য পৃথক প্লেট, বাটি, চামচ ব্যবহার করুন। বাচ্চাদের বোতল দিয়ে খাবার খায়বেন না।

৮. অতিরিক্ত গরম বা ঠান্ডা খাবার শিশুকে দেবেন না।

 ৯. খাওয়ার জন্য জেদ করবেন না  প্রতিটি নতুন খাবার আট থেকে দশবার চেষ্টা করা যেতে পারে।

 ১০. শিশুকে তার হাত দিয়ে খেতে উত্সাহিত করুন।

১১.  গলায় আটকে যায় এমন খাবার দেবেন না।

 ১২. বাচ্চাকে খাওয়ানোর সময় টিভি দেখা বা ফোনে কথা বলতে উচিত নয় ।