ব্যায়াম ছাড়াই ভুঁড়ি কমানোর উপায়-How to lose belly fat

ব্যায়াম ছাড়াই ভুঁড়ি কমানোর উপায়

পেটের মেদ বা ভুড়ি (belly fat)একটা বড় সমস্যা এবং এর জন্য আমরা নিজেরাই দাই। তার আসল কারণ হল অনিয়মিত জীবন যাপন, দীর্ঘ সময় বসে কাজ করা, পরিশ্রম কম করা বা অতিরিক্ত ফাস্টফুড খায়া কারণে পেটে মেদ জমতে থাকে। যত দ্রুত আমাদের পেটে মেদ জমে, তত তাড়াতাড়ি তাকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা খুবই কঠিন।

কিন্তু সমস্যা থাকলে তার সমাধান অবশ্যই আছে আমরা যদি নিয়মিত ব্যায়াম করি তাহলে পেটের মেদ খুব সহজেই কমানো যায় তা আমাদের সকলের জানা আছে। তবে আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যাদের ব্যায়াম করার সময় থাকেনা। তাই ব্যায়াম ছাড়াই ভুঁড়ি কমানোর উপায় এমনই টিপস আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করব যার সাহায্যে কিছু সহজ অভ্যাসের মাধ্যমে আপনি নিজেই পেটের ভুড়ি(belly fat) কমিয়ে ফেলতে পারবেন ।

কীভাবে? জেনে নিন ৮ টি ঘরোয়া সহজ উপায়। ব্যায়াম না করে দ্রুত ভুঁড়ি কমাবার এর থেকে সহজ উপায় আর নেই।

১. লেবু এবং মধু সিরাপ।

প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস উষ্ণ গরম জলে ২ টেবিল চামচ লেবুর রস, ১ চামচ মধু এবং এক চিমটি লবন মিশিয়ে এই সিরাপ খান এই পানীয়টি দিনে ১-২ বার পান করুন, একবার সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে আর একবার রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে। এই সিরাপ নিয়মিত খেলে শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমাতে আপনাকে সাহায্য করবে।

২. ভাত এবং রুটি।

ভুঁড়ি কমানোর উপায় সাদা ভাতের চেয়ে লাল ভাত বেছে নিন তবে ভাত কম খান।  সম্ভব হলে একবার ভাত খাবেন। ব্রাউন রুটি, এর রুটি আপনার দেহে অতিরিক্ত ক্যালোরি যুক্ত করবে না।  ধীরে ধীরে পেটের ভুঁড়ি কমে যাবে।

৩. চিনিযুক্ত খাবার বাদ দিন।

মিষ্টি খাবার যেমন মিষ্টি, কোল্ড ড্রিঙ্কস এবং তেলে ভাজা ফাস্টফুড থেকে ১০০% দূরে থাকুন।  কারণ এ জাতীয় খাবারগুলি আপনার শরীরের বিভিন্ন অংশে বিশেষত পেট এবং উরুতে খুব দ্রুত চর্বি জমে।  সুতরাং এগুলি খাবেন না তবে ফল খান।

ব্যায়াম ছাড়াই ভুঁড়ি কমানোর উপায়

৪. প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন

প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন।  প্রচুর পরিমাণে জল খেলে আপনার দেহের মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায় এবং রক্তের ক্ষতিকারক পদার্থগুলি প্রস্রাবের সাথে বেরিয়ে আসে।  মেটাবলিজম বর্ধিত হওয়ার ফলে শরীরের মেদ কমে যায়। তবে ফ্রিজের জল কম পান করুন। যদি সম্ভব হয় আপনি হালকা উষ্ণ গরম জল পান করুন তবে আরও ভাল ফল পাওয়া যাবে।

আরো পড়ুন : উজ্জ্বল ত্বক পেতে হলুদ ফেস প্যাক

৫. প্রতিদিন রসুন খান

প্রতিদিন সকালে উঠে খালি পেটে রসুনের ২-৩ টি কোয়া চিবিয়ে খান, এর কিছুক্ষণ পরেই হালকা উষ্ণ গরম জলে লেবু মিশিয়ে পান করুন। এটি আপনার পেটের মেদ কমাতে দ্বিগুণ দ্রুত কাজ করবে।  এছাড়াও, এই পদ্ধতিটি দেহে রক্ত ​​চলাচলকে আরও সহজ করে দেবে।

৬. মশলা খান।

অনেকে বলে যে রান্নায় অতিরিক্ত মশলা ব্যবহার করা ঠিক নয়।  তবে আপনি কি জানেন যে কিছু মশলা আমাদের শরীরের ওজন হ্রাস করতে সহায়তা করে।

যেমন রান্নায় চিনি, আদা এবং কালো মরিচ ব্যবহার করুন।  এটি আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা হ্রাস করবে এবং চর্বি কমাতে সহায়তা করবে এটি ব্যায়াম ছাড়াই পেটের চর্বি হ্রাস করতে সহায়তা করে।

৭. প্রচুর ফলমূল ও শাকসবজি খান।

অন্য কোনও কিছুর পরিবর্তে প্রতিদিন সকালে এবং সন্ধ্যায় এক বাটি ফল এবং শাকসবজি খাওয়ার চেষ্টা করুন।  এটি আপনার শরীরকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস, খনিজ এবং ভিটামিন দেবে এবং এটি রক্তের বিপাক বৃদ্ধি করে সহজেই আপনার পেটের ভুঁড়ি কমাবে।

৮. মাংস থেকে দূরে থাকুন

যতটা সম্ভব চর্বিযুক্ত মাংস এড়িয়ে চলুন।  পরিবর্তে, কম ফ্যাটযুক্ত মাংস বা মুরগির রান্না করা স্যুপ চয়ন করুন।

বন্ধুরা এমনই কিছু নিয়ম মেনে চলুন এতে খুব সহজেই ব্যায়াম ছাড়াই ভুঁড়ি কমাতে সাহায্য করবে।
বন্ধুরা এই প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে ফেসবুকে শেয়ার করুন ধন্যবাদ ।