ভেলোরে ৫টি বিখ্যাত হসপিটালের চিকিৎসা করানোর খরচা ও পদ্ধতি

ভেলোরে ৫টি বিখ্যাত হসপিটালের চিকিৎসা করানোর খরচা ও পদ্ধতি

তামিলনাড়ু রাজ্যে ৫টি বিখ্যাত হাসপাতাল রয়েছে। আপনি এই গুলির মধ্যে যে কোনও একটিতে চিকিত্সা করতে পারেন। কিন্তু আপনি কি জানেন যে কোন হাসপাতালটি আপনার জন্য সঠিক? বা কোন হাসপাতালে কতো খরচ এই বিষয় বিস্তারিত জানতে সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি পড়ুন। আমি কথা দিচ্ছি আপনি কোন হাসপাতালে চিকিৎসা নেবেন তা আপনি নিজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

১. অ্যাপোলো হাসপাতাল

চেন্নাইয়ের অ্যাপোলো হাসপাতাল সেরা। এতে রয়েছে সর্বাধুনিক যন্ত্রপাতি এবং বিশ্বমানের ডাক্তার। কিন্তু এখানে চিকিৎসা করানোর খরচা দক্ষিণ ভারতে অন্যান্য হাসপাতালের চে সবচেয়ে বেশি। দক্ষিণ ভারতের অন্যান্য হাসপাতালের তুলনায় এখানে চিকিৎসা পেতে খুব কম সময় লাগে। তাই আপনি যদি কম সময়ে ভালো চিকিৎসা পেতে চান তাহলে এখানে আসুন। তবে অন্যান্য হাসপাতালের তুলনায় চিকিৎসার খরচ অনেক বেশি হবে এটা আপনাদের অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে । অবস্থান – অ্যাপোলো হাসপাতাল চেন্নাই সেন্ট্রাল রেলওয়ে স্টেশন থেকে মাত্র ৪ কিমি এবং চেন্নাই এগমোর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ৩ কিমি দূরে অবস্থিত। আপনি হাওড়া বা শিয়ালদহ থেকে অনেক ট্রেন পাবেন। হাসপাতালটি চেন্নাই বিমানবন্দর থেকে ১৫ কিমি দূরে অবস্থিত।

ঠিকানা –
অ্যাপোলো হাসপাতাল, গ্রিমস রোড
21, গ্রিমস লেন
ঝাঁঝরা রাস্তা
চেন্নাই – 600006
ফোন- +91-44-28290200 / +91-44-28293333
+91-44-28294429

ভেলোরে ৫টি বিখ্যাত হসপিটালের চিকিৎসা করানোর খরচা ও পদ্ধতি

আপনি যদি চেন্নাইয়ের অ্যাপোলোতে যান, তাহলে ভাষার সামান্য সমস্যা থাকলেও। খাওয়ার সমস্যা হবে না। অ্যাপোলো হাসপাতালের ঠিক পাশেই অনেক বাঙালি হোটেল আছে। কম খরচে বাঙালি মাছ ও ভাত পাওয়া যাবে। তবে আপনি নিজে রান্না করে খেতে পারেন। এর জন্য আলাদা হোটেল আছে। সেখানে থাকতে পারেন সেখান থেকে রান্নার জন্য বাসন ভাড়া নিতে পারেন। ভাষার কোন সমস্যা হবে না। আপনার যদি হিন্দি বা ইংরেজির সামান্য জ্ঞান থাকে, তাহলে চলে যাবে । থাকার জন্য অনেক দামী, সস্তা হোটেল আছে। যতটা সম্ভব হাসপাতালের কাছাকাছি থাকার চেষ্টা করুন। তাহলে প্রতিদিন হাসপাতালে যাওয়ার খরচ বাঁচবে।

সময় –
১. যদি আপনি যদি ডাক্তারের দেখাতে যান, তাহলে আপনাকে ৮ থেকে ১০ দিনের জন্য পরিকল্পনা করতে হবে। বা আপনি যদি অপারেশন জন্য যান কমপক্ষে ২০ দিন সময় নিতে হবে।

Registration করার জন্য ডানদিকে প্রথম ভবন, অ্যাপোলো হাসপাতালের প্রবেশদ্বারে, “সুন্দরী ব্লক” বলা হয়। এই ব্লকে Registration করতে হবে ।

২. শ্রী রামচন্দ্র মেডিকেল সেন্টার –

যদি আপনার পকেটে টাকা কম থাকে তাহলে আপনি চেন্নাইয়ের শ্রী রামচন্দ্র মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসা নিতে পারেন। যাইহোক, এখানে চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় সময় সিএমসি ভেলোরের তুলনায় অনেক কম। শ্রী রামচন্দ্র মেডিকেল সেন্টার 1985 সালে পোরুর, চেন্নাইয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। আমরা অনেকেই এই মেডিকেল সেন্টার সম্পর্কে কিছু জানি না কারণ এটি তেমন পরিচিত নয়। কিন্তু এখানে চিকিৎসা দান করার পদ্ধতি অনেক ভালো এবং খরচও অনেক কম। বিশেষ করে মেডিকেল সেন্টারের পরিবেশ এবং চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা চোখ ধাঁধানো।

ঠিকানা –
হাসপাতালটি চেন্নাই সেন্ট্রাল রেলওয়ে স্টেশন থেকে ১৬ কিমি দূরে অবস্থিত।
শ্রী রামচন্দ্র মেডিকেল সেন্টার
নং ১ রামচন্দ্র নগর, পোরুরি
চেন্নাই, তামিলনাড়ু,

৩. ভেলোরের সিএমসি হাসপাতাল –

কম খরচে ভাল মানের চিকিৎসার জন্য দক্ষিণ ভারত বিখ্যাত। ভেলোর দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের একটি ছোট জেলা শহর। সিএমসি হল ভারতের প্রথম শ্রেণীর হাসপাতাল। এই হাসপাতালের চারপাশে অনেক হোটেল এবং লজ তৈরি করা হয়েছে। রুম ভাড়াও তুলনামূলকভাবে কম। আপনি যদি কম খরচে চিকিৎসা নিতে চান তাহলে CMC সবচেয়ে ভালো। যাইহোক, এখানে উপচে পড়া ভিড়ের করনে চিকিৎসা করতে অনেক সময় লাগে।

কেন ভেলোর চিকিৎসা?

ভেলোর ভারতের বিখ্যাত সিএমসি হাসপাতাল। এই হাসপাতালে আপনি তুলনামূলক কম খরচে বিশ্বমানের চিকিৎসা পাবেন। কারণ এটি একটি খ্রিস্টান মিশনারি দ্বারা পরিচালিত একটি অলাভজনক হাসপাতাল।

আপনি যদি এই হাসপাতালে যেতে চান, আপনাকে কাটপাটি স্টেশনে নামতে হবে। কলকাতা থেকে অনেক ট্রেন কাটপাতি স্টেশনে থামে। কাটপাটি স্টেশন থেকে আপনি অনেক ট্রেন পাবেন।

ঠিকানা –
ইডা স্কুডার রোড, ভেলোর, তামিলনাড়ু 632004
ফোন: 0416 228 1000

তুমি কোথায় থাকবে?
আপনি CMC এর আশেপাশে অনেক হোটেল এবং লজ পাবেন। আপনি লজে রান্নার সুবিধা পাবেন এবং রুমের ভাড়া তুলনামূলকভাবে কম।

৪. শ্রী নারায়ণী হাসপাতাল –

আপনি যদি কম খরচে এবং কম সময়ে ভাল চিকিৎসা পেতে চান তাহলে আপনি ভেলোরের শ্রী নারায়ণী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে পারেন। সিএমসি ভেলোর হাসপাতাল থেকে শ্রী নারায়ণী হাসপাতালের দূরত্ব মাত্র ৬ কিলোমিটার। ভেলোর একটি ছোট শহর হলেও এটিতে দুটি বিশ্বমানের হাসপাতাল রয়েছে। কাটপাটি স্টেশন থেকে এই হাসপাতালের দূরত্ব ২৬ কিলোমিটার।

ঠিকানা –
শ্রী নারায়ণী হাসপাতাল এন্ড রিসার্চ সেন্টার
আজাদ রোড, শ্রীপুরম, তিরুমালাইকোডি, ভেলোর, তামিলনাড়ু 632055
ফোন: 0416 220 6301

ভেলোরে ৫টি বিখ্যাত হসপিটালের চিকিৎসা করানোর খরচা ও পদ্ধতি

৫. মণিপাল হাসপাতাল –

মণিপাল হাসপাতাল ব্যাঙ্গালোরের একটি শীর্ষস্থানীয় হাসপাতাল। এটি একটি ৬০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল। শিগগিরই আরও ৩০০শয্যা যুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে। এখানে চিকিৎসার খরচ চেন্নাইয়ের অ্যাপোলোর তুলনায় অনেক কম।

মণিপাল হার্ট ইনস্টিটিউট, মণিপাল ইনস্টিটিউট অফ নেফ্রোলজি অ্যান্ড ইউরোলজি, মণিপাল ইনস্টিটিউট অফ নিউরোলজিক্যাল ডিজঅর্ডারস, মণিপাল কমপ্রিহেনসিভ ক্যান্সার সেন্টার এবং মনিপাল ইনস্টিটিউট অফ ক্যান্সার সেন্টারের মতো বেশ কয়েকটি ইউনিট রয়েছে। এই সব কেন্দ্র সফলভাবে কাজ করছে।

আরো পড়ুন – কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা

ঠিকানা –
মণিপাল হাসপাতাল এইচএএল এয়ারপোর্ট রোড
মণিপাল হাসপাতাল
98, এইচএএল এয়ারপোর্ট রোড,
বেঙ্গালুরু – 560017
অ্যাপয়েন্টমেন্ট হেল্পলাইন: 1800 3001 4000
অনুসন্ধান: +91 80 40119000/2502 4444

কিন্তু যাদের সময় এবং ধৈর্য আছে তারা সিএমসিতে চিকিৎসা করাতে পারন। সিএমসিতে চিকিৎসা বিশ্বমানের, কিন্তু বিপুল সংখ্যক রোগীর কারণে ডাক্তারের নিয়োগ থেকে শুরু করে সব কিছুতেই বেশি সময় লাগবে। এখানে আপনাকে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে, দীর্ঘ সময় ওয়েটিং রুমে বসে থাকতে হবে।

যাদের ধৈর্য কম কিন্তু অর্থ আছে তাদের পরামর্শ দেব চেন্নাইয়ের অ্যাপোলোতে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য। এবং ধৈর্য এবং অর্থ আছে, আমি শ্রী রামচন্দ্র বা নারায়ণী হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পরামর্শ দেব। দুটির মধ্যে শ্রী রামচন্দ্র হাসপাতাল কিছুটা এগিয়ে।

বন্ধুরা এই প্রতিবেদনটি বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না