মিথ্যা ভালোবাসা চেনার ৪ টি উপায়ে

মিথ্যা ভালোবাসা চেনার ৪ টি উপায়ে

বন্ধুরা আশা করছি আপনারা সবাই অনেক ভাল আছেন তো বন্ধুরা প্রেম-ভালোবাসা এগুলো কমবেশি আমাদের প্রত্যেকের লাইফের একটি মোস্ট ইম্পর্টেন্ট অনেকেই ভালোবাসার প্রতিশ্রুতি মাধ্যমে তাদের জীবন টাকে বদলাতে চায়। হাতে হাত চোখে চোখ রেখে কাটিয়ে দিতে চায় সারাটা জীবন। কেউ চায় না যে তার ভালোবাসার মানুষটি তাকে রেখে অন্য কারো সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান।

বর্তমান সময়ে আন ম্যাচিওর প্রেমের কারণে ধোকা দেওয়ার হার অনেক বেড়ে গেছে যে বয়সে আমরা মাঠে গিয়ে বৃষ্টির মধ্যে ফুটবল খেলতাম সেই বয়সে ছেলে মেয়েরা নাকি এখন প্রেমে ধোকা খেয়ে ঘরের কোনায় বসে আছে। আবার কেউ কেউ সুইসাইড করতে চাইছে। এবং কিছু কিছু কারনে প্রেমিক বা প্রেমিকার মনে সন্দেহ জন্ম নেয়। এবং সে ভাবতে লাগে আমাকে ঠকাচ্ছ না তো সে বুঝতে পারে না যে তার ভালোবাসার মানুষটিকে সত্যিই তাকে ভালবাসে নাকি জাস্ট টাইম পাস করছে।

আবার সম্পর্কের প্রথমদিকে আপনার পার্টনার আচরণ অন্যরকম ছিল বর্তমানে যা বদলে যাওয়া হয়তো আপনি অস্থিরতা এবং ডিপ্রেশনে ভুগছেন অস্থিরতার কারণেই কারো কারো শিক্ষাজীবন আবার কারো কারো কর্মজীবনে ব্যাঘাত ঘটে। আর তার সাথে সাথে শারীরিক সমস্যা তো রয়েছে তাই কোন রিলেশন শুরু করার আগে বা সম্পূর্ণরূপে যাওয়ার আগেই আমাদের এটা জেনে নেওয়া উচিত। নিজের সমস্ত ভালোবাসা ব্যয় করতে চলেছেন সে কি আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে নাকি আপনাকে ধোঁকা দেবে।

আর এটা যেন আমাদের মন ভেঙে কাচের মত টুকরো হওয়ার আগেই আমাদের রিলেশন থেকে বেরিয়ে নিজেদের কে বাঁচাতে পারবো আমরা এমন চারটি সহজ উপায়ে শেয়ার করতে চলেছে। যার সাহায্যে আপনার পার্টনারকে যাচাই করতে পারবেন যে আপনার পার্টনার ভালোবাসাটা কি সত্যি নাকি নিতান্তই নাটক তাই এই সম্পন্ন প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত অবশ্য পরুন। শুরু করার আগে আপনাকে এটাও বলব যে সমস্ত মানুষ কখনোই এরকম হয়না তাই অলওয়েজ নিজের বুদ্ধি কে কাজে লাগিয়ে যেকোনো প্রতিবেদনট পড়ে বা একটা ছোট্ট ভিডিও দেখে নিজের ভালোবাসার মানুষটিকে কখনো কষ্ট দেবেন না। যতক্ষণ পর্যন্ত ১০০% শিওর না হচ্ছেন।

আরো পড়ুন:

আরো পড়ুন: ধনী হতে চাইলে এই ২টি অভ্যাস মেনে চলুন

১. প্রথমে আপনার প্রিয় মানুষটি আপনার সঙ্গে অলওয়েজ অনুভূতিহীন আচরণ করে তবে ধরে নিতে পারেন যে আপনাকে ভালোবাসে না। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় ধরুন একজন বৃদ্ধ লোক রাস্তায় পড়ে গেলেন অথচ তার পাশে থাকা লোকটা সেটা দেখে তাকে সাহায্য করতে তো এললো না বরং শেষ সেখান থেকে চুপচাপ কেটে পরলেন। এমন ভাব দেখালেন যেন কিছুই ঘটেনি ঠিক এমনটাই যদি আপনার প্রিয় মানুষটি আপনার সঙ্গে করে।

আপনার কোন ব্যর্থতা বা খারাপ সময় দেখেও শুধু নিজের ফাইদার কথায়-ভাবে তাহলে তখন আপনার কেমন লাগবে সেটা নিশ্চয়ই আপনাকে ভেতর থেকে ভীষণ হাট করবে। তবে আপনার প্রিয় মানুষটি আপনার সঙ্গে এমন আচরণ করে তাহলে সে আপনাকে ভালোবাসার নামে ঠকাচ্ছে। যে আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে সে ভালো সময় আপনার সঙ্গে থাকুক বা নাই থাকুক খারাপ সময় এর সম্পূর্ণ চেষ্টা করবে নিঃস্বার্থভাবে আপনার পাশে থাকবে এবং আপনার ফিলিংস কে বুঝার চেষ্টা করবে।

মিথ্যা ভালোবাসা চেনার ৪ টি উপায়ে

২. যার মধ্যে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার ইচ্ছাই নেই ভালোবাসা সম্পর্কটা সাধারণত অনেকটা সময় সাপেক্ষ একটা ব্যাপার। আর এই সম্পর্কের পারস্পারিক বন্ধন শক্তিশালী করতে প্রচুর সময় নিতে হয় আমরা সবাই জানি যে দুটো আলাদা আলাদা মানুষ বহুদিন ধরে একসঙ্গে থাকলে কিছু ঝামেলা তো আসবে আর এটা অবশ্য একটা স্বাভাবিক ঘটনা । যদি কোনো ঝামেলার কারণে আপনার পার্টনার এমন কিছু করে বসে যেমন হতে পারে আপনাদের মধ্যে কোন থার্ড পারসন বা তৃতীয় ব্যক্তিকে নিয়ে আসা আপনাকে কষ্ট দেওয়ার জন্য অন্য কারো সঙ্গে রিলেশন এ চলে যাওয়া নিজের ইচ্ছাতেই অন্য ছেলে বা মেয়ের সঙ্গে কথা বলার ঘুরতে যাওয়া এমন কিছু যদি করে থাকে তাহলে তো নিশ্চিত ভাবেই বোঝা যায় যে সে শুধু আপনাকে নাম মাত্রই ভালবাসেন।

যে আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে সে কখনই চাইবেন আপনাকে কষ্ট দিতে তাই যত যাই হোক না কেন মরে গেলেও সে কখনোই অন্য কারোর হতে পারে না বা আপনাদের মধ্যে কোন থার্ড পার্সেন কখনো আনতে পারেনা। সে আপনাকে ভালবাসে আর আপনি যেমনই হয়ে থাকুন না কেন তার কাছে আপনি সবার সেরা তাই যদি আপনার বয়ফ্রেন্ড বা গার্লফ্রেন্ড কখনো কোনো থার্ড পার্সন কে আপনাদের রিলেশনের মধ্যে নিয়ে আসে তাহলে সেই মুহূর্তে এসে রিলেশন থেকে সাইট হয়ে যান না হলে পরবর্তীতে আপনার সিচুয়েশন হয়তো ভীষণ খারাপ হতে পারে।

৩. মিথ্যাবাদী যদি কখনো বুঝতে পারেন যে আপনার পার্টনার আপনাকে অলওয়েজ কোন না কোন বিষয় নিয়ে মিথ্যা কথা বলছে তাহলে বুঝবেন যে সে আপনাকে ভালোবাসে না। যে প্রত্যেকটা মানুষই লাইফে কম বেশি মিথ্যা কথা তো বলেই থাকে। বাকি ম্যাক্সিমাম টাইম যদি আপনাকে মিথ্যা বলে তাহলে নিশ্চয়ই কোন গ্যারাকল তো আছেই যেমন ধরুন আপনি আপনার বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বের হলেন আর রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় আপনার গার্লফ্রেন্ডকে সেই ছেলেটার সাথে দেখতে পেলেন যার সাথে আপনার গার্লফ্রেন্ড থাকাটা আপনি মোটেই পছন্দ করেন না।

আর আপনার গার্লফ্রেন্ড আপনাকে এমন কী প্রমিস করেছিলে যে সে ওই ছেলেটার সাথে কথা ও পর্যন্ত বলবে না আর আপনার সামনে হয়ত তাকে ফোন থেকে ব্লক করে দিয়েছিল তো সেই ছেলেটার সঙ্গে আপনার গার্লফ্রেন্ডকে দেখতে পেয়ে আপনার কেমন লাগবে। তো আশাকরি নিশ্চয়ই এখানে আর কিছু বলার দরকার নেই বাট পরবর্তীতে যখন আপনি আপনার গার্লফ্রেন্ডকে এটা প্রশ্ন করলেন যে ওইদিন ওই সময় সে কোথায় গিয়েছিল তখন আপনাকে বলল যে সে তার ফ্যামিলির সঙ্গে বাইরে ঘুরতে গিয়েছিল আর সেই মিথ্যাটা এমন কনফিডেন্স সঙ্গে বললো যেনো আপনি আপনার নিজের চোখেও ভুল দেখেছেন তো এরকম কোন সিচুয়েশনে যদি আপনাদের রিলেশনের হয়ে থাকে তাহলে ভাই এখনই সেই রিলেশন থেকে কেটে পড়ুন।

আরো পড়ুনসারাজীবন বোকা না থেকে মানুষ চিনুন এই ৬উপায়ে 

৪. আপনাকে সম্মান করে না অনেকেই এমন আছে যারা ভালোবাসার মানুষটিকে খেলার পুতুল মনে করে। তার কোন সম্মান করে না পরিবেশ-পরিস্থিতি বন্ধু-বান্ধব আত্মীয়-স্বজন কোনকিছুরই পরোয়া করে না আর ভালবাসার মানুষটিকে যখন তখন খারাপ কথা বলে দেয় এসব করলে নিশ্চয়ই আপনি অপমানিত হবেন আর এই বিষয়ে যদি আপনার পার্টনারের কোন কিছুই না যায় আসে অর্থাৎ তার মনে যদি আপনার জন্য রেস্পেক্ট ই না থাকে তাহলে এটা তো স্বাভাবিক ব্যাপার যে সেখানে ভালবাসার লেশমাত্র নেই।

এছাড়াও সে যদি আপনাদের রিলেশনের একসঙ্গে কাটানো সময় গুলো আপনার তার ওপর থাকা বিশেষ ফিলিংস গুলো অন্য কোন মানুষকে শেয়ার করে অর্থাৎ আপনি তার সঙ্গে কখন কেমন ব্যবহার করেছেন কখন কোন কিছু যদি গোপন না রাখে তাহলে ওই ইনডাইরেক্টলি এটাই বুঝায় যে সে আপনার ভালোবাসাকে নিয়ে খিল্লি করছে। আর পরবর্তীতে হয়তো তার সঙ্গে কোনো বিশেষ কথা বলতেন সেগুলো অন্য কোন মানুষ আপনাকে টোন কাটবে অর্থাৎ এখানে বোঝা যায় যে আপনার প্রিয় মানুষটি শুধু তার ওপর থাক আপনার ফিলিং ইমোশান অর্থাৎ যেগুলো শুধুমাত্র আপনাদের একান্ত গোপনীয় সেগুলোকেও পাবলিকলি শেয়ার করে আপনার ভালোবাসাকে অপমান করেছে।

তেমনটাও যদি হয় তাহলে নিশ্চিত ভাবে সে আপনাকে কখনোই ভালবাসেনি শুধু তার কিছু ভালোলাগা বা চাহিদা পূরণের উদ্দেশ্যে আপনার সঙ্গে রয়েছে। বন্ধুরা এর মধ্যে কোন একটি বিষয় যদি আপনাদের রিলেশনের মধ্যে অলরেডি থেকে থাকে তাহলে আমি আপনাকে গ্যারান্টি দিচ্ছি আপনাদের রিলেশনের life-long হবে না। আশা করছি আপনি আপনাদের রিলেশন যাচাই করতে পারবেন যেকোন ডিসিশন নেওয়ার আগে অবশ্যই ১০০% সিওর হয়ে নেবেন না হলে হিতে বিপরীত হতে পারে তো আপনার রিলেশন কি সত্যি কারের ভালোবাসা আছে নাকি সেটাও একটা মিথ্যা ভালোবাসা তা অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্ট করে জানান ধন্যবাদ ।