মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূর করার ১০টি উপায়-How to remove facial hair

মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূর করার ১০টি উপায়

মুখের অবাঞ্ছিত লোম মহিলাদের জন্য মারাত্মক সমস্যা। এই লোমের কারণেই মুখের সৌন্দর্য নষ্ট হতে পারে। বিশেষত ঠোঁটের উপরের এবং নীচের অংশে, কানের পাশে বা ঝুলপিতে কখনও কখনও কপালে এই লোম হয়ে থাকে।

এখান কার দিনে মুখের লোম অপসারণের জন্য অনেক বিউটি ট্রিটমেন্ট আছে। কিন্তু সেগুলো খুবই ব্যয়বহুল যা সবার পক্ষে সম্ভব নয়।

সেই কথা মাথায় রেখেই আজকে এমনই কিছু ঘরোয়া টিপস আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করব যার ব্যবহারে ঘরে বসেই মুখের অবাঞ্ছিত লোম থাকে মুক্তি পাবেন। তাহলে আসুন জেনে নিন কীভাবে ঘরে বসে মুখের অবাঞ্ছিত লোম থেকে মুক্তি পাবেন।

বাড়িতে এই পদ্ধতিটি ব্যবহার করার আগে দয়া করে নিয়মগুলি সাবধানে পড়ুন।  লেখার শেষে বিশেষ নোটটি পড়তে ভুলবেন না।

১. লেবুর রস এবং চিনি স্ক্রাব

লেবুর রস একটি প্রাকৃতিক ব্লিচ।  এটি অবাঞ্ছিত মুখের লোম মুছে ফেলার জন্য ভালো কাজ করে।

একটা লেবুর রসে বর করে নিন এতে ২ টেবিল চামচ চিনি ভাল করে মিশিয়ে নিন। চিনি গলে যাওয়া এবং আঠালো না হওয়া পর্যন্ত নাড়ুন।

এবার এই মিশ্রণটি লোমের অংশে লাগান। এটি ১৫ মিনিটের জন্য রেখে দিন এরপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন।

আপনি সপ্তাহে ২-৩ দিন এটি প্রয়োগ করতে পারেন।

২. হলুদ লেবুর রস স্ক্রাব করুন

হলুদ গুঁড়ো ত্বকের জন্য খুব ভাল এবং লেবুর রসে ভিটামিন সি রয়েছে যা প্রাকৃতিক ব্লিচ তাই এই মিশ্রণটি মুখের অবাঞ্ছিত লোম মুছে ফেলতে সহায়তা করে।

এর জন্য একটি গোটা লেবুর রসে ২ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন।

তারপরে এটি ১৫ মিনিটের জন্য মুখের চুলের অংশে লাগিয়ে রাখুন তারপর জলে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন।  ভালো ফল পেতে এটি সপ্তাহে দু’বার ব্যবহার করুন।

৩. কফি স্ক্রাব

কফির মধ্যে থাকা ক্যাফেইন ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে মুখের  অতিরিক্ত লোম মুছে ফেলতে সহায়তা করে।

কফির স্ক্রাব তৈরি করতে ২ টেবিল চামচ কফি পাউডার, ১ টেবিল চামচ চিনি, ২ টেবিল চামচ লেবুর রস এবং কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন।

তবে এক্ষেত্রে চিনি পুরোপুরি গলে যাওয়া উচিত নয়।

এই মিশ্রণটি দিয়ে ৫ মিনিটের জন্য চুলের অংশটি ভাল করে ম্যাসাজ করুন।

তারপরে এটি ১৫ মিনিটের মতো রেখে দিন।  এটি সপ্তাহে ২ দিন ব্যবহার করুন।

৪. ডিম এবং কর্নফ্লাওয়ার

একটি ডিমের সাদা অংশ নিয়ে এতে ১ টেবিল চামচ কর্নফ্লাওয়ার এবং একটু সামান্য চিনি যুক্ত করুন।

ডিমের সাদা অংশ এবং কর্নফ্লাওয়ার আঠালো তাই এটি ত্বকের অবাঞ্চিত লোম টেনে তুলে আনতে সহায়তা করে।

তবে যাদের মুখে ব্রণ বা ফুসকুড়ি রয়েছে তাদের এই পদ্ধতিটি ব্যবহার করা উচিত নয়।

৫. টমেটো এবং লেবু স্ক্রাব

টমেটো ভিটামিন সি এর সমৃদ্ধ উত্স টমেটো এবং লেবু দুজনে মিলে দুর্দান্ত স্ক্রাব করে।  এ জন্য টমেটোর রস এবং লেবুর রস সমান পরিমাণে মিশিয়ে নিন।  প্রয়োজনে আপনি এটিতে ১চা চামচ চিনি যোগ করতে পারেন।  এবার এই পেস্টটি লোমযুক্ত জায়গায় ভালো করে লাগান।  এভাবে১৫-২০ মিনিটের জন্য রেখে দিন।  এবার ঠান্ডা জলে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিন।  আপনি এটি সপ্তাহে ২দিন প্রয়োগ করতে পারেন।

৬. পাকা কলা এবং ওটমিল

মাঝারি আকারের একটি পাকা কলা ভালো করে পেষ্ট করে নিন এতে ২ টেবিল চামচ ওটমিল মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন।

এবার এই পেষ্ট মুখে লাগিয়ে হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন এরপর ১৫-২০ মিনিটের জন্য রেখে ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফল পেতে এটি সপ্তাহে ২বার প্রয়োগ করুন।

মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূর করার ১০টি উপায়

৭. মধু এবং লেবু স্ক্রাব

লেবু এবং মধু একটি প্রাকৃতিক ব্লিচ।  এছাড়াও, মধু ত্বকের পিএইচ মান বজায় রাখে।

তাই ১ চা চামচ লেবুর রস ২ চা চামচ মধু মিশ্রিত করুন এবং এটি পুরো মুখে লাগান এবং প্রায় ২০ মিনিটের জন্য রেখে দিন।

এবার ঠান্ডা জল দিয়ে আপনার মুখটি ভাল করে ধুয়ে নিন।

আরো পড়ুন : চুল সিল্কি করার ১০টি উপায়

৮. পেঁপে এবং দুধ প্যাক

অবাঞ্ছিত মুখের লোম মুছে ফেলে ত্বককে আকর্ষণীয় করে তোলে পেঁপেও।

  ২ চা চামচ পেঁপের পেষ্ট নিন এতে ১ চামচ দুধ মিশ্রিত করে একটি প্যাক তৈরি করুন এবং এটি মুখের মুখের লোমে লাগান

১৫ মিনিটের জন্য রেখে দিন, এটি শুকনো হলে মুখে সামান্য জল দিয়ে এটি ভালো করে মালিশ করুন এরপর জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এটি সপ্তাহে একবার করুন।

৯. মুগ করাই এবং মেথি গুঁড়ো

  ২ চা চামচ মুগ করাই গুঁড়ো ২ চা চামচ মেথি গুঁড়ো এবং প্রয়োজন মতো জল যোগ করে ঘন পেষ্ট তৈরি করুন ।  মিশ্রণটি ১৫ মিনিটের জন্য মুখে রেখে দিন এবং জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ভাল ফলাফল পেতে এই মিশ্রণটি সপ্তাহে ৩ দিন মুখে লাগান।

১০. আলু এবং মসুর ডাল

সারারাত মসুর ডাল ভিজিয়ে রাখুন।  এবার এতে ৪ চা-চামচ আলুর রস এবং ১ চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন।

এবার এই পেস্টটি মুখের লোমের ওপর লাগান।

এটি আপনার ত্বকের ওপর একটা আস্তরন ফেলবে, যা মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূর করতে সহায়তা করে।

সতর্কতাঃ

যদি কোনও উপাদানের ব্যবহার ফলে মুখের চুলকানি বা জ্বলন সৃষ্টি হয় তবে মুখে ঠাণ্ডা জল এবং বরফ লাগান।  আপনি যদি খুব বেশি অনুভব করেন তবে একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।