শিশুদের মোবাইলের আসক্তি কমানোর উপায়

শিশুদের মোবাইলের আসক্তি কমানোর উপায়

শিশুরা দেশের সম্পদ। ডিজিটালাইজেশনের যুগে শিশুদের মোবাইল আসক্তি দিন দিন বেড়েই চলেছে। এই সমস্যাটিও অভিভাবকদের জন্য অত্যন্ত চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। গবেষকরা বিশ্বাস করেন যে শিশুদের মধ্যে ক্রমবর্ধমান মোবাইল আসক্তির কারণে পারিবারিক সম্পর্কের ধারণার পরিবর্তন হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ানলাইট ইনস্টিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি শারমিন আহমেদ শিশুদের মোবাইলের আসক্তি কমানোর একটি উপায় নিয়ে এসেছেন। তার মতে, শিশুদের মোবাইলের আসক্তি (স্ক্রিন এডিকশন) এর ফলাফল ভালো নয়।

শিশুদের মধ্যে মোবাইল আসক্তি কমাতে আপনি এই কাজগুলো করতে পারেন।

১. শিশুর সাথে কথা বলুন। শিশুরা একাকীত্বের শিকার হয়ে মোবাইলে আসক্ত হয়ে পারে। আপনার যদি সময় থাকে তবে আপনি শিশুকে গল্প বলুন। শিশুরা ছোটবেলায় গল্প শুনতে ভালো বাসে। এমনকি মাতৃগর্ভে থাকাকালে গল্প শুনলেও তার মানসিক বিকাশ বৃদ্ধি পায়। তাই শিশুকে বেশি সময় দিতে হবে এবং তার সঙ্গে প্রচুর গল্প করতে হবে।

২. আপনার বাড়ির পরিবেশ কেমন? চারপাশে কি ডিভাইস? ঘরে ঢোকার সাথে সাথেই একটা বড় টিভি? আপনি কি প্রতি মিনিটে মোবাইল দেখেন ? তাহলে এই গুলো পরিবর্তন করতে হবে। কারণ শিশুরা প্রথমে পরিবার থেকে শিক্ষা পায়। অতএব অভিভাবকদের এই বিষয়ে বিশেষ যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। যতটা সম্ভব শিশুদের সামনে মোবাইল, টিভি বা যেকোনো ডিভাইস এড়িয়ে চলুন।

৩. বাড়ির চারপাশে আপনি শিশুদের উপযুক্ত রঙ, তুলি, ছবি আঁকার জিনিস, কালার পেনসিল, বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্র যেমন (বাঁশি, সেতার, বেহালা) বা নানা ধরনের খেলনা বাড়ির চারপাশে রাখতে পারেন। এতে আপনার সন্তান তাদের প্রতি মনোযোগী হবে । এভাবে, সে একা থাকলেও সে ছবি আঁকার চেষ্টা করবে এবং গান বাজানোর চেষ্টা করবে বা খেলবে।

আরো পড়ুন: শিশুকে আত্মবিশ্বাসী করে তোলার কিছু টিপস

৪. ঘরে প্রচুর বই রাখুন। আপনি যখন বই নিয়ে অবসরে বসবেন, তখন আপনার সন্তান আপনার পাশে বসবে। অথবা সংবাদপত্র পড়ার অভ্যাস তৈরি করুন। আপনাকে দেখার সাথে সাথেই এই অভ্যাস গুলো আপনার শিশুর মধ্যে গড়ে উঠবে।

৫. প্রকৃতির কাছাকাছি আসা। শিশুদের প্রকৃতির কাছাকাছি নিয়ে যাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যেমন শিশুর সাথে বাগানে বা পার্কে নিয়ে যান। লুকোচুরি খেলুন, ঘুরে বেড়ান, সময় কাটান। বা বন্ধুদের সঙ্গে খেলা করতে দিন। এভাবে শিশুরা সামাজিক হয়ে উঠবে । নতুন কিছু আবিষ্কার করতে সক্ষম হবে । এতে আপনার সন্তানের মানসিক বিকাশের উন্নতি হবে।

আপনি বাচ্চাদের বাড়িতে ব্যস্ত রাখতে পারেন। বিশেষ করে মায়েরা এটা করতে পারেন। আপনি আপনার সন্তানকে বলতে পারেন, আজ আমাকে সাহায্য করুন। এর মাধ্যমে আপনার সন্তান গৃহস্থালির কাজে আগ্রহী হবে এবং সে মোবাইল নেশা থেকে দূরে থাকবে। এইভাবে কিছু ছোট ছোট বিষয়ে মেনে চলুন এতে আপনার শিশুর মুবাইলের প্রতি আসক্তি কমবে।

বন্ধুরা এই প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না ধন্যবাদ।