শুষ্ক ত্বকে মেকআপ প্রয়োগ করার ১০ টি টিপস

শুষ্ক ত্বকে মেকআপ প্রয়োগ করার ১০ টি টিপস

শুষ্ক ত্বকে মেকআপ করার টিপস ,মেকআপ একটি শিল্প, ভালো মেকআপ করার কৌশল যেমন আয়ত্ত করতে হয়, তেমনি শুষ্ক ত্বকে মেকআপ করার জন্যও আপনাকে কিছু বিশেষ কৌশল শিখতে হবে। আপনি যদি শুষ্ক ত্বকে সঠিকভাবে মেকআপ প্রয়োগ করতে না পারেন তবে আপনাকে সুন্দরের চেয়ে খারাপ দেখাতে পারে। যাইহোক, এমনকি শুষ্ক ত্বকের মালিকরাও অনন্য হতে পারেন যদি আপনি কয়েকটি সহজ পদ্ধতি অনুসরণ করেন।

১. স্ক্রাবিং দিয়ে শুরু করা যাক

আপনার ত্বকের উপরিভাগে যদি কোনো মৃত কোষ থাকে, তাহলে সেগুলো অপসারণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এতে আপনার মেকআপ মসৃণ হবে। এটি করার জন্য, মুখে একটি হালকা স্ক্রাব ব্যবহার করুন, যা মেকআপ প্রয়োগ করার আগে ত্বক থেকে নিস্তেজ, মৃত কোষগুলিকে এক্সফোলিয়েট করতে সহায়তা করবে।

২. SPF সহ ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন

ময়শ্চারাইজিং আপনার দৈনন্দিন ত্বকের যত্নের রুটিনের অংশ হওয়া উচিত। বিশেষ করে যদি আপনি শুষ্ক, এটি বিশেষ হাইড্রেশন প্রয়োজন! শীতকালেও এসপিএফ যুক্ত ময়েশ্চারাইজার লাগান! আপনার ত্বককে হাইড্রেট করার পাশাপাশি এটি বলিরেখাও কমায়।

৩. সঠিক আবেদনকারী ব্যবহার করুন

মেকআপের বেশিরভাগ সাফল্য আসে যখন সঠিক প্রয়োগকারী ব্যবহার করা হয়। এর মানে হল যে আপনি কখনই আপনার মুখে ফাউন্ডেশন লাগাবেন না এবং আপনার হাত দিয়ে মেশাবেন না। আর এ কারণে মেকআপ ব্লেন্ড করতে সঠিক ব্রাশ, স্পঞ্জ এবং ব্লেন্ডার ব্যবহার করা খুবই জরুরি।

৪. অবশ্যই প্রাইমার প্রয়োগ করুন

শুষ্ক ত্বক হলে ফাউন্ডেশন ও আইশ্যাডো লাগানোর আগে অবশ্যই প্রাইমার লাগান। প্রাইমার আপনার মেকআপকে ঠিক জায়গায় রাখতে সাহায্য করে, পাশাপাশি মেকআপ প্রয়োগের জন্য একটি সুন্দর ক্যানভাস তৈরি করে।

শুষ্ক ত্বকে মেকআপ করার টিপস

[আরো পড়ুন এই ৪ টি উপায়ে ব্লাকহেড দূর করুন চিরতরে]

৫. শুষ্ক ত্বকের জন্য ফাউন্ডেশন খুঁজুন

শুষ্ক ত্বকে ফাউন্ডেশন ব্যবহার করার ক্ষেত্রে, একটি তরল ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন। কারণ পাউডার ফাউন্ডেশন লাগালে ত্বকে প্যাচিনেস আসতে পারে। যা,

৬. পাউডার ব্যবহার করবেন না

শুষ্ক ত্বকে ফাউন্ডেশন লাগাতে কখনই পাউডার ব্যবহার করবেন না। এটি চেহারাটিকে খুব আকর্ষণীয় করে তোলে, তাই মেকআপ সেট করতে পাউডারের পরিবর্তে একটি মেকআপ সেটিং স্প্রে ব্যবহার করুন।

৭. ক্রিম ব্লাশ ব্যবহার করুন

ব্লাশ এবং ব্রোঞ্জারের জন্য একটি ক্রিম ফর্মুলা ব্যবহার করুন। এমন পরিস্থিতিতেও শুষ্ক ত্বকে পাউডার ব্লাশ ব্যবহার করলে আপনার ত্বককে শুষ্ক দেখাতে পারে। আর তাই ক্রিম ভিত্তিক ব্লাশ আপনার জন্য সেরা বিকল্প।

৮. ত্বকে উজ্জ্বলতা আনতে আপনাকে অবশ্যই হাইলাইটার ব্যবহার করতে হবে।

দুর্ভাগ্যবশত, শুষ্ক ত্বক মাঝে মাঝে নিস্তেজ দেখাতে পারে – তবে আপনার ত্বকের হারানো উজ্জ্বলতা পুনরুদ্ধার করতে একটি ইলুমিনেটর ব্যবহার করতে ভুলবেন না। আপনার গালের হাড়ে তরল হাইলাইটার লাগান। একটি ভালো মানের হাইলাইটার ব্যবহার করলে আপনার মুখে প্রাকৃতিক আভা আসবে। আপনি বিভিন্ন স্কিন টোনের জন্য বিভিন্ন হাইলাইটার বেছে নিতে পারেন।

৯. ম্যাট লিপস্টিক এড়িয়ে চলুন

যাদের ত্বক শুষ্ক, তাদের শুধু মুখের ত্বকই শুষ্ক নয়, তাদের ঠোঁটও খুব শুষ্ক। এমন পরিস্থিতিতে খুব সাবধানে লিপস্টিক বেছে নিন। কখনোই সুপার ম্যাট লিপস্টিক পরবেন না। শুষ্ক ঠোঁটে শুষ্ক লিপস্টিক লাগালে তা মোটেও ভালো দেখাবে না, বরং ঠোঁটের শুষ্কতা বাড়িয়ে দেবে। এ জন্য ভালো ক্রিমি বা গ্লসি ধরনের লিপস্টিক বেছে নিন।

১০. সতেজ দেখতে ফেস মিস্ট লাগান

মেকআপ লাগানোর পর ফ্রেশ লুক পেতে মুখে কুয়াশা লাগান। আপনি এটি আপনার ভ্যানিটি ব্যাগেও রাখতে পারেন। যখনই ত্বক একটু শুষ্ক মনে হবে তখনই একটু স্প্রে করুন। এটি ত্বকের গ্লো এবং হাইড্রেশন বজায় রাখে।