গ্যাসের সমস্যা দূর করুন ঘরোয়া উপায় -Home remedies for acidity

গ্যাসের সমস্যা (acidity) দূর করুন ঘরোয়া উপায় 

গ্যাসের সমস্যা (acidity) বা অ্যাসিডিটি আমাদের প্রতিদিনের জীবনের একটি অতি পরিচিত নাম, এবং এখন কার ব্যস্ততম জীবনে আমরা ঠিক সময়ে খাইনা বা বেশিরভাগ সময় আমাদের বায়রের খাবার খেতে হয় এবং এই অনিয়মিত জীবন যাপনের জন্য আমাদের প্রত্যেকেরই গ্যাসের সমস্যা (acidity) বা অ্যাসিডিটিতে সমস্যায় ভুগছে ।

এছাড়াও, আপনি যদি নিয়মিত ব্যায়াম না করেন বা শারীরিক পরিশ্রম না করেন, কম জল পান করান বা খালিপেটে থাকার ফলে গ্যাস হতে পারে।  আপনি যদি প্রথমে সচেতন না হন তবে পরে আলসার হওয়ার ঝুঁকি থাকে। তাই যতো তারাতারি সম্ভব এর চিকিৎসা করা উচিৎ।

এই সমস্যা আমরা প্রাই এন্টাসিট খেয়ে থাকি যা আমাদের সাময়িকভাবে আরাম দেয়। তাই আজকে এমনই কিছু টিপস শেয়ার করবো যেটির সাহায্য ঘরোয়া কীছু উপাদান ব্যবহারের করে আপনার গ্যাস্ট্রিক বা অ্যাসিডিটির সমস্যা থাকে চিরতরে মুক্তি পাবেন।

গ্যাসের সমস্যা (acidity) দূর করার কিছু টিপস ।

১. রসুন – রসুনের গ্যাস্ট্রাইটিসের চিকিত্সার জন্য ঘরোয়া প্রতিকার

গ্যাসের সমস্যা (acidity) থেকে মুক্তি পেতে রসুন একটি অনন্য উপাদান।  রসুন, গোলমরিচ গুঁড়ো এবং জিরা গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে জলেতে সিদ্ধ করতে হবে।  জল ফুটে উঠলে নাবিয়  ছেঁকে নিন।  তারপরে জল ঠাণ্ডা হয়ে এলে এতে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করুন।  আপনি যদি এই জল দিনে দুবার পান করেন তবে ভাল ফল পাবেন।  রসুনের স্যুপ গ্যাস সমস্যা থেকে মুক্তি পেতেও বেশ কার্যকর।

২. আদা ব্যবহার।

আদা সবচেয়ে কার্যকর ইনফ্লেমেটরি খাবারগুলির মধ্যে একটি।  আদা দ্রুত গ্যাসের সমস্যা (acidity), অম্বল, হজমে সমস্যা এবং অ্যাসিডিটির সমস্যা কাটিয়ে উঠতে সক্ষম।  আপনার পেটে যদি গ্যাস এবং ফোলাভাব হয় তবে কাঁচা আদা পিষে নুন দিয়ে ভাল করে চিবিয়ে নিন।  খুব শীঘ্রই গ্যাস সমস্যার সমাধান পাওয়া যাবে।

  গ্যাসের সমস্যা (acidity) দূর করুন ঘরোয়া উপায় 

৩. দই – ঘরোয়া প্রতিকার ।

দইতে অনেক উপকারী ল্যাকটোবাকিলাস, এসিডোফিলাস ও বিফিডাসের মতো নানা ধরণের উপকারী ব্যাকটেরিয়া রয়েছে । এই সমস্ত উপকারী ব্যাকটিরিয়া খাদ্য দ্রুত হজমে সহায়তা করে এবং খারাপ ব্যাকটেরিয়াগুলি ধ্বংস করে।  তাই দই খেলে হজমে উন্নতি হয় এবং গ্যাস কম হয়।  তাই খাওয়ার পরে দই খাওয়া খুব কার্যকর মনে করা হয়।

আরো পড়ুন : দাঁতের ব্যথা কমানোর ৭টি ঘরোয়া উপায়

৪. গ্যাসের সমস্যা (acidity) জন্য শসা

পেট ঠান্ডা রাখতে শসা একটি খুব কার্যকর ডায়েট।  কাঁচা শশায় কিছুটা নুন ছড়িয়ে দিয়ে তা চিবিয়ে খেলে হজমে খুব বড় ভূমিকা থাকে।  এর কারণ এটিতে ফ্ল্যাভোনয়েডস এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান রয়েছে যা গ্যাসের সমস্যা (acidity) হ্রাস করে।  এছাড়াও, এতে প্রচুর সিলিকন এবং ভিটামিন সি রয়েছে  যারা ওজন হ্রাস করতে চান তাদের জন্য শসা একটি আদর্শ টনিক হিসাবে কাজ করে।  এ ছাড়া নিয়মিত শসা গ্রহণের ফলে দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

৫. হলুদি – ঘরোয়া প্রতিকারের।

হজমজনিত সমস্ত ধরণের সমস্যা দূর করতে হলুদ খুব কার্যকর।  এটি ফ্যাটযুক্ত খাবার হজমে ভূমিকা রাখে।  এছাড়াও, হলুদে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান রয়েছে, যা প্রদাহ হ্রাস করে।

কাঁচা হলুদ চিবিয়ে খাবেন, খারাপ লাগলে একটু গুড় সাথে মিশিয়ে নিন। তারপরে ১ গ্লাস জল পান করুন। এছাড়াও আপনি চাইলে দুধে কাঁচা হলুদ দিয়ে ফুটিয়ে নিন তারপর এই দুধ পান করতে পারেন এটি পেট পরিষ্কার রাখে এবং আপনার গায়ের রং ফর্সা করে তোলে।

৬. কলা – গ্যাসের সমস্যা (acidity) জন্য কলা ব্যবহার।

যে সমস্ত লোক খুব বেশি কাঁচা লবণ খান তাদের গ্যাস ও হজমের সমস্যা হতে পারে।  কলা উপস্থিত পটাসিয়াম দেহে সোডিয়াম এবং পটাসিয়ামের ভারসাম্য বজায় রাখে।  কলা হজমে সহায়তা করে।  শরীর থেকে দূষকগুলি সরিয়ে দেয়।

৭. জল – ঘরের প্রতিকারের

জল খাওয়ার উপকারিতা সবারই জানা আছে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ১-২ গ্লাস জল পান করুন, আপনি দেখতে পাবেন যে আপনাকে সারা দিন গ্যাসের সমস্যা (acidity) ব্যথা ভোগ করতে হবে না।  এবং আপনি যদি সকালে খালি পেটে ১ গ্লাস হালকা গরম পানি পান করতে পারেন তবে গ্যাস সমস্যার আরও ভাল ফলাফল পাবেন।  কারণ হজম শক্তি বাড়াতে জল একটি খুব কার্যকর উপাদান।  এছাড়াও এটি হজম সমস্যা দূর করে পেট পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করে।

গ্যাসের সমস্যা (acidity) থেকে মুক্তি পাওয়া খুব কঠিন। তাই ওপরে দেয়া আপনার সুবিধা মতো যেকোনো একটি প্রধতি নিয়মিত খান এতেও সমস্যা সমাধান না হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন । সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন ধন্যবাদ ।